Robi Phone Loan | রবি ফোন লোন আগে মোবাইল পরে টাকা

robi phone loan

হাতে টাকা নাই তো কি হইছে স্মার্ট দুনিয়ায় স্মার্ট ফোন কিনতে নো টেনশন মামা। আজকের এই আর্টিকেলে Robi phone loan সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য উপস্থাপন করবো।

রবি গ্রাহকদের গ্রাহকদের স্মার্টফোন কিনতে সহায়তা করতে ‘Robi phone loan’ নামে একটি অনন্য স্মার্টফোন

ফিন্যান্সিং ক্যাম্পেইন চালু করেছে দেশের শীর্ষ ডিজিটাল সেবা প্রদানকারী কোম্পানি রবি।

একটি মানসম্পন্ন স্মার্টফোন কিনতে যে অর্থ প্রয়োজন গ্রামের স্বল্প আয়ের মানুষের পক্ষে একবারে তা জোগাড় করা বেশির ভাগে ক্ষেত্রেই সম্ভব হয় না।

আবার ক্রেডিড কার্ডের মাধ্যমে ইএমআই সুবিধা থেকেও তারা বঞ্চিত।

Robi Phone Loan | রবি ফোন লোন

আরো বেশি গ্রাহকদের ডিজিটাল সেবার আওতায় আনতে এবং ডিজিটাল জীবনধারার সাথে সম্পৃক্ত করতে এই ক্যাম্পোইনটি হাতে নিয়েছে রবি।

ইতোমধ্যে ১১ হাজারের বেশি ৪.৫জি সাইট নিয়ে দেশের বৃহত্তম ৪.৫জি সেবাদাতা হিসেবে নিজেদের প্রতিষ্ঠা করেছে কোম্পানিটি।

ক্যাম্পেইনটির আওতায় স্মার্টফোন কেনার সামর্থ নেই এমন গ্রাহকদের হাতে লোনের মাধ্যমে ডিভাইস পৌঁছে দিয়ে ডিজিটাল বৈষম্য দূর করার চেষ্টা করছে অপারেটরটি।

বাংলাদেশে ৪জি প্রযুক্তির উপযোগী হ্যান্ডসেটের সংখ্যা এখন ৪২%, যা বিশ্বের অন্যান্য দেশের তুলনায় অনেক কম।

এর পিছনে রয়েছে হ্যান্ডসেটের মূল্য অনুযায়ী গ্রাহকদের ক্ষমতা।

এই মূল্যের কারনে অনেকে নিজের শখ মাটি চাপা দিচ্ছে। গ্রাহকদের আর্থিক ক্ষমতা বিবেচনা করে দেশের অন্যতম

মোবাইল ফোন অপারেটর সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান চালু করেছে এই লোন সেবা।

robi phone loan Robi Phone Loan Process | রবি ফোন লোন নেওয়ার নিয়ম

আপনি চাইলে খুব সহজেই কোনো প্রকার জামানত বিহীন একটি অ্যাপ ব্যবহার করে লোন নিয়ে মোবাইল ক্রয় করতে পারবেন।

আর এর জন্য অবশ্যই আপনাকে গুগুল প্লে স্টোর থেকে অথবা নিচের দেওয়া লিংক থেকে Robi phone loan app ডাউনলোড করতে পারবেন।

Download App

অ্যাপ ডাউনলোড করে ইন্সটল করার পর আপনাকে অ্যাপে প্রবেশ করে একটি রবি নাম্বার দিয়ে সাইন আপ করে নিতে হবে।

সাইন আপ করা হয়ে গেল যথাযথ অ্যাপটিতে লগ ইন করুন। উপরে আপনার একাউন্ট কত পারসেন্ট কম্পলিট হয়েছে তা দেখাবে।

তারপর মাই প্রোফাইলে ক্লিক করে আপনার প্রোফাইল টি যথা যথ পূরন করুন।

আপনার একাউন্টি ১০০% পুরন করা হয়ে গেলে আপনি সেখান থেকে আপনার পছন্দের ফোনের জন্য আবেদন করতে পারবেন।

তারপর তারা আপনাকে এসএমএস এর মাধ্যমে বিস্তারিত জানিয়ে দিবে।

এরপর রবির ওয়াক-ইন-সেন্টার (ডব্লিউআইসি), আর স্টোর, ফোন লোন অ্যাপ ও ওয়েবসাইট থেকে এককালীন

ডাউন পেমেন্টর মাধ্যমে তাদের পছন্দের হ্যান্ডসেটটি কিনতে পারবেন যোগ্য গ্রাহকরা।

বাকী টাকা গ্রাহকদের সুবিধা অনুযায়ী ছয় থেকে বার মাসের সমান মাসিক কিস্তিতে পরিশোধ করা যাবে।

রবি ফোন লোন নিতে কি কি প্রয়োজন

আপনি ফোন লোন অ্যাপটিতে ১০০% প্রোফাইল কমপ্লিট করতে হলে অবশ্যই যথাযথ ফরম পূরণ করতে হবে। আর এরজন্য যা যা লাগবে তা নিচে উল্লেখ করা হয়েছে;

  • রবি মোবাইল নাম্বার
  • আপনার এনআইডি কার্ড
  • আপনার ঠিকানা
  • নমিনি হিসেবে যে কারো এন আইডি কার্ড
  • উক্ত ব্যক্তির মোবাইল নাম্বার ও ঠিকানা

ব্যাস এই প্রসেসগুলা ভালোভাবে পূরন করলেই আপনি পেয়ে যাবেন লোনের মাধ্যমে মোবাইল ফোন।

আপনার যদি কোনো সমস্যা হয় তাহলে অবশ্যই রবি কাস্টমার কেয়ার এ যোগাযোগ করতে পারেন।

রবি কাস্টমার কেয়ার

অথবা রবি হেল্পলাইনে কল করে বা রবি ওয়েবসাইট থেকে জেনে নিতে পারেন।

আশা করি রবি মোবাইল ফোন লোন সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য দিয়ে সহযোগিতা করতে পেরেছি।

এছাড়াও রবি লোন সম্পর্কে কোনো তথ্য অসম্পূর্ণ থাকলে কমেন্ট করে জানাতে পারেন।

2 thoughts on “Robi Phone Loan | রবি ফোন লোন আগে মোবাইল পরে টাকা”

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top