বিকাশ একাউন্ট বন্ধ হলে করনীয় | বিকাশ একাউন্ট

 

 

মোবাইল  ব্যবহার করেন আর বিকাশ একাউন্ট নেই এমন লোক বর্তমানে পাওয়া যাবে না।

যেহেতু বিকাশ হলো একটি মোবাইল ব্যাংকিং সার্ভিস কাজেই তাদের সিস্টেমটাব অনেক হার্ড। বিকাশ একাউন্ট বন্ধ হওয়ার অনেক কারণ আছে।

তাই আমরা সর্বপরি বুজতে হবে কি কারনে আপনার একাউন্টটি বন্ধ হয়েছে।

কারণ অনেক সমস্যা ঘরে বসেই কিছু তথ্য ভেরিফাই করে ঠিক করা যায় আবার কিছু কিছু সমস্যা সমাধান পেতে হলে তাদের নিকটস্থ সার্ভিস সেন্টারে যেতে হয়।

ভালো ভাবে বুঝতে হলে নিচের লেখা গুলা ভালো ভাবে পড়েন।

বিকাশ একাউন্ট বন্ধ হওয়ার কিছু কারণ সমূহঃ

১. ৩০ মিনিট এর ভিতরে ৩ বার ভুল পিন মারার জন্য।

২. বিকাশ একাউন্ট এর তথ্য সঠিক না হলে।

৩. অনেক দিন যাবত বিকাশ একাউন্টে লেনদেন না করলে।

৪. সিম রিপ্লেস করলে।

বিকাশ একাউন্ট বন্ধ হলে করনীয়

আমরা যাদের বিকাশ একাউন্ট আছে আমরা সবাই জানি যে ৩০ মিনিট এর ভিতরে ৩ বার ভুল পিন টাইপ করলে বিকাশ একাউন্ট টেম্পোরারি লক হয়ে যায়।

অনাকাঙ্ক্ষিত ভাবে যদি আপনার একাউন্টটি লক হয়ে যায় তাহলে বিকাশ হেল্পলাইনে কল করেই আমরা সমাধান করতে পারবো।

| বিকাশ কাস্টমার কেয়ার লাইভ চ্যাট বিস্তারিত জানতে 

হেল্পলাইন এ কল করার আগে আমাদের কিছু তথ্য কালেক্ট করতে হবে। সর্বপ্রথম বিকাশ একাউন্ট টি যে এন আইডি কার্ড এ নিবন্ধন করা

সেই এন আইডি কার্ড সামনে রাখতে হবে এবং লাস্ট লেনদেন কতটাকা করেছেন তা জানতে হবে। যাতে করে কাস্টমার কেয়ার এর কর্মকর্তা সাথে সাথে

তথ্য ভেরিফাই করতে পারে। তারপর কাস্টমার কেয়ার এ কল করতে হবে। এন আইডি কার্ড যদি কোনো মহিলার হয় তবে মহিলা দিয়ে কথা বলাতে হবে।

কাস্টমার ম্যানেজার সকল তথ্য  ভেরিফাই করা হয়ে গেলে আপনার পিন টি ওয়ান টাইম পাসওয়ার্ড দিয়ে রিসেট করে দেওয়া হবে এবং আপনি সাথে সাথে

ওয়ান টাইম পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে নতুন পাসওয়ার্ড এক্টিভ করতে হবে। bkash হেল্পলাইন নাম্বার (১৬২৪৭)।

তাছাড়া অন্যান্য মাধ্যমে পিন রিসেট করতে Other’s way তে ক্লিক করুন।

বিকাশ account নট এক্টিভ বা অন্যান্য কারণে বন্ধ হলে যা করতে হবেঃ

লেনদেন না করার কারণে ও তথ্য সঠিক না হওয়ার কারণে যদি বিকাশ একাউন্ট বন্ধ হয় তাহলে আপনি সরাসরি বিকাশ কাস্টমার কেয়ারে যেতে হবে।

বিকাশ একাউন্টটি যদি আপনার এনআইডি কার্ড /পাসপোর্ট/লাইসেন্স দিয়ে নিবন্ধন করেছেন থাকেন তাহলে

আপনার নিবন্ধনকৃত এন আইডি কার্ড /পাসপোর্ট/লাইসেন্স এর অরিজিনাল কপি ও বন্ধ হয়ে যাওয়া সিমটি সাথে নিয়ে নিকটস্থ বিকাশ কাস্টমার কেয়ারে যেতে হবে।

| বিকাশ লোন সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন 

বিকাশ একাউন্ট টি যদি আপনার নামে না হয়ে পরিবার বা অন্য কারো এন আইডি কার্ড /পাসপোর্ট/লাইসেন্স  দিয়ে নিবন্ধন করে থাকেন

তাহলে তাকে সাথে করে নিতে হবে এবং নিবন্ধনকৃত কাগজ পত্রের অরিজিনাল কপি নিতে হবে।

নিকটস্থ কাস্টমার কেয়ার এর ঠিকানা জানতে ক্লিক করুনঃ বিকাশ কাস্টমার কেয়ার

সিম রিপ্লেস করার কারণে যদি বিকাশ একাউন্ট লক হয় তাহলে কি করতে হবেঃ

সিম রিপ্লেস করার কারণে বিকাশ একাউন্ট ২৪ ঘন্টার জন্য বন্ধ করে দেওয়া হয়। তাতে ভয় পাওয়ার কিছুই নেই সিম রিপ্লেস এর ২৪ ঘন্টার পর অটো আনলক হয়ে যাবে।

ধন্যবাদ

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top